,

শহরে এক রাতে তিন দোকানে দুঃসাহসিক চুরি

জুয়েল চৌধুরী ॥ হবিগঞ্জ শহরের তিনকোনা পুকুর পাড় ও সিনেমা হল এলাকায় একই রাতে তিনটি দোকানে দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরদের গ্রেফতারের দাবিতে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা টায়ার জ¦ালিয়ে অবরোধ করেছেন। এদিকে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দুই চোরকে আটক করে উত্তম মধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। এদিকে সদর থানা পুলিশ ও ব্যকস সভাপতি শামছুল হুদা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত হয়। ব্যবসায়ীরা জানান, ইদানিং হবিগঞ্জ শহরে প্রায়ই বাসা ও দোকানপাট চুরি হচ্ছে। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। গত বুধবার গভীররাতে শহরের প্রধান সড়ক তিনকোনা পুকুর পাড় এলাকার খাজা কথ স্টোর, শাপলা স্টোর ও গরীবে নেওয়াজ স্টোরে চুরি হয়েছে। চোরের দল তিন দোকানের তালা ও জানালা ভেঙ্গে নগদ ১ লাখ টাকা এবং দামি সিগারেট বক্স, কাপড়ছোপড় ও মূল্যবান কাগজপত্র নিয়ে যায়। এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার সিনেমা হল রোডের বন্ধন রেষ্ট হাউজ থেকে উত্তর শ্যামলী এলাকার বাসিন্দা রুবেল মিয়া (২০) ও মোহনপুর এলাকার বাতির (২২) দুই যুবককে চোর সন্দেহে আটক করে উত্তম মধ্যম দিয়ে সদর থানায় খবর দিলে ওসি (তদন্ত) দৌস মোহাম্মদ, স্থানীয় কাউন্সিলর শেখ নুর হোসেন, এসআই উৎসব কর্মকারসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের আটক করে নিয়ে যান। এর আগে ব্যবসায়ীরা ওই সড়কে টায়ার জ¦ালিয়ে চোরের গ্রেফতার দাবি ও মালামাল উদ্ধারের দাবিতে অবরোধ করেন। ব্যাকস সভাপতি শামছুল হুদা জানান, প্রায়ই দোকানে চুরি হচ্ছে। কিছুদিন আগে কালীবাড়ি এলাকার ইজি ফ্যাশনে দুঃসাহসিক চুরি হয়। এভাবে চুরি বাড়তে থাকলে ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সমুক্ষিণ হচ্ছেন। একের পর পর চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। তিনি বলেন, ইতোপূর্বে কয়েকটি দোকানে চুরি হলেও চুরি যাওয়া কোনো মালামাল উদ্ধার না হওয়ায় চোরের দল আরও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সদর থানা পুলিশ জানায়, চোর ও মালামাল উদ্ধারে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। অচিরেই চোর ধরা পড়বে এবং মালামাল উদ্ধার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর