,

শায়েস্তাগঞ্জে ভয়-কুসংস্কার ভুলে টিকায় আগ্রহ মানুষে

রশায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ করোনাভাইরাসের থেকে বাঁচতে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হলে নানা ভয়, গুজব আর নানা কুসংস্কারে আচ্ছন্ন হয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ থেকে দূরে ছিল সাধারণ মানুষ। রাজনৈতিকভাবেও করা হয়েছিল ভ্যাকসিনের বিরোধিতা। যার প্রভাব পড়েছিল সারাদেশে, এমনকি হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জেও। তবে সময়ে সময়ে মানুষ বুঝতে শিখেছে। জেনেছে, টিকা নেওয়া ছাড়া করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা নেই। এমন বাস্তবতায় ভয়, গুজব আর নানা কুসংস্কারকে তুড়ি মেরে ভ্যাকসিন গ্রহণে আগ্রহী হয়ে উঠছেন শায়েস্তাগঞ্জের মানুষ। কমেছে নেতিবাচক ধারণা। সম্প্রতি শায়েস্তাগঞ্জে করোনায় আক্রান্তদের সংখ্যা বাড়তে থাকায় বাড়ছে ভ্যাকসিন গ্রহণে আগ্রহীদের সংখ্যাও। জানা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জে গতমাসে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে দুইজন মারা গেছেন। এছাড়া প্রতিদিনই গড়ে অন্তত ৪-৫ জন আক্রান্ত হচ্ছেন। শায়েস্তাগঞ্জে করোনার লক্ষণ থাকা সত্ত্বেও টেস্টের হার একেবারে কম। যদিও টিকা নেয়ার আগ্রহ তৈরি হয়েছে; এ খবর শায়েস্তাগঞ্জবাসীর জন্য স্বস্তিদায়ক। যেখানে উঠতি বয়সের তরুণ ও যুবকদের নিজ নিজ মোবাইল দিয়েই সুরক্ষা এপসের মাধ্যমে করোনার টিকা নেয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে দেখা গেছে। এছাড়াও যারা ইন্টারনেট সম্পর্কে কম ধারণা রাখেন তারা কম্পিউটারের দোকান থেকে রেজিস্ট্রেশন করছেন। তবে, টিকার রেজিস্ট্রেশন করলে ও মোবাইলে এসএমএস আসতে দেরি হওয়ায় অনেকেরই টিকা নিতে বিলম্ব হচ্ছে। চলতি আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ইউনিয়নভিত্তিক টিকা কেন্দ্র চালু হতে যাচ্ছে। এতে করে উৎসব মুখর পরিবেশে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বের নারী-পুরুষ টিকা গ্রহন করতে পারবেন। করোনার টিকা নেয়ার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে যেতে হবে না। শুধুমাত্র আইডি কার্ড সাথে করে নিলেই টিকা দেয়া যাবে। শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিনহাজুল ইসলাম জানান, ‘আগামীকাল হবিগঞ্জে টিকা প্রদান বিষয়ে আমাদের জরুরি সভা আছে। সারাদেশের সাথে শায়েস্তাগঞ্জেও ইউনিয়ন পর্যায়ে ৭ আগস্ট টিকা প্রদান চালু হবে। শায়েস্তাগঞ্জে যেহেতু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নেই তাই আমাদের কিছু লোকবলও সংকট রয়েছে। এ সংক্রান্ত সকল নির্দেশনা আগামীকাল জানানো হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর