,

হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কে বাস ও সিএনজি অটোরিকশার সংঘর্ষে শিক্ষিকাসহ নিহত ২

জুয়েল চৌধুরী ॥ হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কের ধুলিয়াখাল আমতলি এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে শিক্ষিকাসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। গুরুতর আহত অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকাল ৪টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী। নিহতরা হলেন, চুনারুঘাট উপজেলার শানখলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা ও সুজাতপুর প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক শাহিন চৌধুরীর স্ত্রী রোকেয়া আক্তার (৪৫) ও হবিগঞ্জ সদর উপজেলার শরীফপুর গ্রামের ইদ্রিছ আলীর ছেলে ধান চাউল ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম (২৮)। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, গতকাল বুধবার বিকালে ধুলিয়াখাল এলাকায় শায়েস্তাগঞ্জ থেকে হবিগঞ্জগামী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে হবিগঞ্জ থেকে সিলেটগামী একটি বিরতিহীন বাসের সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই প্রধান শিক্ষিকা রোকেয়া আক্তার মারা যান। এ ঘটনায় আহত হন আরও চারজন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক সাইফুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। সংঘর্ষের পরপরই পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ ও আহতদের উদ্ধার করেন। এ সময় ওই সড়কে ঘণ্টাখানেক যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। ওই সময় শিক্ষিকা দুই সন্তানের জননী রোকেয়া আক্তার হবিগঞ্জ শহরের সুলতান মাহমুদপুরের বাসায় ও সাইফুল শহরে আসছিলেন। স্থানীয়রা জানান, বিরতিহীন বাসগুলো হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কে বেপরোয়া গতিতে চলে। সিএনজি চালকরাও কম যায় না। প্রায়ই দেখা যায়, সিএনজি চালকরা বাসের সাথে পাল্লা দিচ্ছে। ফলে প্রায়ই ওই সড়কে দুর্ঘটনা ঘটছে। ওসি মো. মাসুক আলী জানান, নিহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি আটক করলেও চালকরা পালিয়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর