,

স্ত্রীর অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকিতে বানিয়াচংয়ে যুবতীর আত্মহত্যা

জুয়েল চৌধুরী : বানিয়াচংয়ে স্ত্রীর অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকির কারণে এক নববধূ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় আলোচনার ঝড় বইছে। তবে পুলিশ বলছে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। জানা যায়, উপজেলার রামগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা মিন্নত আলীর কন্যা হাজেরা খাতুন (২০) এর সাথে ৩ মাস আগে মোবাইল ফোনে একই গ্রামের সৌদি প্রবাসী রাসেল মিয়ার (২৫) বিয়ে হয়। যদিও তাদের দেখা সাক্ষাত হয়নি। তবুও তারা ভিডিও কলের মাধ্যমে খোলামেলাভাবে আমোদ ফূর্তি করতো। আর এ সুযোগ কাজে লাগায় রাসেল মিয়া। এক পর্যায়ে রাসেলের সন্দেহ হয় তার স্ত্রীর চলাফেরা ভালো নয়। তাকে শাসানো হয়। ১ মাস আগে রাসেল মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে হাজেরাকে তালাক দেয়। এক পর্যায়ে হাজেরার পরিবার অন্যত্র তার বিয়ের দিন ধার্য্য করেন। রাসেল জানতে পেরে হাজেরাকে মোবাইল ফোনে হুমকি দেয় যদি অন্যত্র বিয়ে করে তবে তার অশ্লীল ছবি যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেবে। এতে হাজেরা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে। গত শুক্রবার রাতেও রাসেল মোবাইল ফোনে হাজেরাকে হুমকি দিতে থাকে। হুমিক সহ্য করতে না পেরে লজ্জায় হাজেরা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। ওই দিন রাত ৩টার দিকে সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে সদর থানার এসআই নাজমুল হাসান লাশের সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্ত শেষে বিকেলে পরিবারের জিম্মায় হস্তান্তর করেন। এ ঘটনায় আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। বানিয়াচং থানার ওসি মোঃ এমরান হোসেন জানান, অভিযোগ ফেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

     এই বিভাগের আরো খবর