,

ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত ২ চুর

হবিগঞ্জে চিকিৎসকের বাসায় চুরির রহস্য উদঘাটন ॥ মালামাল উদ্ধার

জুয়েল চৌধুরী : হবিগঞ্জ শহরের ইনাতাবাদে ডাক্তার আল আমিন সুমনের বাসায় দুঃসাহসিক চুরির ঘটনায় মূল রহস্য উদঘাটন করেছে ডিবি পুলিশ। এমনকি ওই ঘটনার মূলহোতা চোর জুয়েল মিয়া ও তার সহযোগি কবির মিয়া আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে। গতকাল রবিবার বিকেলে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-১ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক ইয়াসিন আরাফাতের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়ে স্বেচ্ছায় তাদের চুরির ঘটনা স্বীকার করে। উক্ত মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই অভিজিৎ ভৌমিক আদালতের বরাত দিয়ে এ প্রতিনিধিকে জানান, বাসা থেকে চুরি যাওয়া বেশ কিছু মালামাল তাদের হেফাজত থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং ওই মামলায় আর কারা কারা জড়িত তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ না করা হলেও তাদেরকে গ্রেফতার করে মালামাল উদ্ধার করে পরবর্তীতে জানানো হবে। গত শনিবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের কোর্ট স্টেশন এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিচি ইশানকোনা গ্রামের বাবুল মিয়ার পুত্র এ ঘটনার মূলহোতা কুখ্যাত চোর জুয়েল মিয়া (৩০) ও তার সহযোগি সুলতান মাহমুদপুর গ্রামের আম্বর আলীর পুত্র কবির মিয়া (২৮) কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা ঘটনার কথা স্বীকার করে এবং তাদের তথ্য অনুযায়ী অভিযান চালিয়ে চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়। ইতোপূর্বে জুয়েলের স্ত্রী ও তার সহযোগিকে আটক করে আরও মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। তারা বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। উল্লেখ্য ৮ এপ্রিল রাতের কোনো এক সময় দাঁতের ডাক্তার আল আমিন সুমনের বাসার দরজা ভেঙ্গে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকারসহ প্রায় ৮/১০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায় চোরের দল। এ ঘটনায় তিনি সদর থানায় মামলা করলে পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলির নির্দেশে ডিবি ও সদর থানা পুলিশ অভিযানে নামে এবং চুরির মূল রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়।

     এই বিভাগের আরো খবর