,

চুনারুঘাটে পিতার লাঠির আঘাতে ছেলের মৃত্যু

জুয়েল চৌধুরী : চুনারুঘাটে পারিবারিক কলহের জের ধরে পিতার লাঠির আঘাতে দিলীপ তন্তুবায় (৩৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল
সোমবার রাত দেড়টায় উপজেলার দেওরগাছ ইউপির পুরাণ বাংলায় ঘটনাটি ঘটেছে। দিলীপ ওই এলাকার রেণু তন্তুবায়ের পুত্র। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চুনারুঘাট থানার ওসি মো. আলী আশরাফ।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, দিলীপ স্থানীয় বাগানের একজন শ্রমিক। রোববার নিজের কাজকর্ম শেষে দিলীপ বাড়ি ফেরেন। এরপর তার সাথে স্ত্রী মনি তন্তুবায়ের পারিবারিক বিষয় নিয়ে গোলযোগ হয়। দিলীপ উত্তপ্ত হয়ে কথা কাটাটির এক পর্যায়ে মনি তন্তুবায়কে মারপিট করে। এ সময় মনি তন্তুবায়ের শ্বশুর রেণু তন্তুবায় ঘুমিয়ে ছিল। মনি তন্তুবায় ঘুম থেকে ডেকে শ্বশুর রেণুকে মারপিটের বিষয়টি জানালে পিতা এবং ছেলের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে পুত্র-পিতার নাকে, মুখে লাঠি দিয়ে আঘাত করে, পরবর্তীতে পিতা-পুত্রকে ধাক্কা দিয়ে বাড়ীর উঠানের বারান্দার পাকা সিঁড়ির উপর ফেলে দেয়। এতে পিতা রেণু রাগের বশবর্তী হয়ে কাছে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে মাথায় ও শরীরে আঘাত করেন দিলীপকে। এদিকে লাঠির আঘাতে দিলীপ আহত হলে পরে পরিবারের লোকজন তাকে সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দুপুরে দিলীপকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে রেফার করা হয়। হবিগঞ্জ নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরবর্তীতে হবিগঞ্জের কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে দিলীপকে মৃত ঘোষণা করেন।
মো. আলী আশরাফ বলেন, স্বামী-স্ত্রীর কলহের জের ধরে পিতা পুত্রকে লাঠি দিয়ে আঘাত করায় তিনি মারা গেছেন। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

     এই বিভাগের আরো খবর